Home    Source

 
 Home
 Subject Index
 Bukhari Shareef
 Muslim Shareef
 Abu Dawud
 Malik Muwatta
Google
See Arabic as Image 
69) সূরা আল হাক্বক্বাহ (মক্কায় অবতীর্ণ), আয়াত সংখ্যা 52
 بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
 শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 | 31-45 | 46-52 |
 
  الْحَاقَّةُ  (1
সুনিশ্চিত বিষয়।  
The Sure Reality!  
 
  مَا الْحَاقَّةُ  (2
সুনিশ্চিত বিষয় কি?  
What is the Sure Reality?  
 
  وَمَا أَدْرَاكَ مَا الْحَاقَّةُ  (3
আপনি কি কিছু জানেন, সেই সুনিশ্চিত বিষয় কি?  
And what will make thee realise what the Sure Reality is?  
 
  كَذَّبَتْ ثَمُودُ وَعَادٌ بِالْقَارِعَةِ  (4
আদ ও সামুদ গোত্র মহাপ্রলয়কে মিথ্যা বলেছিল।  
The Thamud and the 'Ad People (branded) as false the Stunning Calamity!  
 
  فَأَمَّا ثَمُودُ فَأُهْلِكُوا بِالطَّاغِيَةِ  (5
অতঃপর সমুদ গোত্রকে ধ্বংস করা হয়েছিল এক প্রলয়ংকর বিপর্যয় দ্বারা।  
But the Thamud,- they were destroyed by a terrible Storm of thunder and lightning!  
 
  وَأَمَّا عَادٌ فَأُهْلِكُوا بِرِيحٍ صَرْصَرٍ عَاتِيَةٍ  (6
এবং আদ গোত্রকে ধ্বংস করা হয়েছিল এক প্রচন্ড ঝঞ্জাবায়ূ,  
And the 'Ad, they were destroyed by a furious Wind, exceedingly violent;  
 
  سَخَّرَهَا عَلَيْهِمْ سَبْعَ لَيَالٍ وَثَمَانِيَةَ أَيَّامٍ حُسُومًا فَتَرَى الْقَوْمَ فِيهَا صَرْعَى كَأَنَّهُمْ أَعْجَازُ نَخْلٍ خَاوِيَةٍ  (7
যা তিনি প্রবাহিত করেছিলেন তাদের উপর সাত রাত্রি ও আট দিবস পর্যন্ত অবিরাম। আপনি তাদেরকে দেখতেন যে, তারা অসার খর্জুর কান্ডের ন্যায় ভূপাতিত হয়ে রয়েছে।  
He made it rage against them seven nights and eight days in succession: so that thou couldst see the (whole) people lying prostrate in its (path), as they had been roots of hollow palm-trees tumbled down!  
 
  فَهَلْ تَرَى لَهُم مِّن بَاقِيَةٍ  (8
আপনি তাদের কোন অস্তিত্ব দেখতে পান কি?  
Then seest thou any of them left surviving?  
 
  وَجَاء فِرْعَوْنُ وَمَن قَبْلَهُ وَالْمُؤْتَفِكَاتُ بِالْخَاطِئَةِ  (9
ফেরাউন, তাঁর পূর্ববর্তীরা এবং উল্টে যাওয়া বস্তিবাসীরা গুরুতর পাপ করেছিল।  
And Pharaoh, and those before him, and the Cities Overthrown, committed habitual Sin.  
 
  فَعَصَوْا رَسُولَ رَبِّهِمْ فَأَخَذَهُمْ أَخْذَةً رَّابِيَةً  (10
তারা তাদের পালনকর্তার রসূলকে অমান্য করেছিল। ফলে তিনি তাদেরকে কঠোরহস্তে পাকড়াও করলেন।  
And disobeyed (each) the apostle of their Lord; so He punished them with an abundant Penalty.  
 
  إِنَّا لَمَّا طَغَى الْمَاء حَمَلْنَاكُمْ فِي الْجَارِيَةِ  (11
যখন জলোচ্ছ্বাস হয়েছিল, তখন আমি তোমাদেরকে চলন্ত নৌযানে আরোহণ করিয়েছিলাম।  
We, when the water (of Noah's Flood) overflowed beyond its limits, carried you (mankind), in the floating (Ark),  
 
  لِنَجْعَلَهَا لَكُمْ تَذْكِرَةً وَتَعِيَهَا أُذُنٌ وَاعِيَةٌ  (12
যাতে এ ঘটনা তোমাদের জন্যে স্মৃতির বিষয় এবং কান এটাকে উপদেশ গ্রহণের উপযোগী রূপে গ্রহণ করে।  
That We might make it a Message unto you, and that ears (that should hear the tale and) retain its memory should bear its (lessons) in remembrance.  
 
  فَإِذَا نُفِخَ فِي الصُّورِ نَفْخَةٌ وَاحِدَةٌ  (13
যখন শিংগায় ফুৎকার দেয়া হবে-একটি মাত্র ফুৎকার  
Then, when one blast is sounded on the Trumpet,  
 
  وَحُمِلَتِ الْأَرْضُ وَالْجِبَالُ فَدُكَّتَا دَكَّةً وَاحِدَةً  (14
এবং পৃথিবী ও পর্বতমালা উত্তোলিত হবে ও চুর্ণ-বিচুর্ণ করে দেয়া হবে,  
And the earth is moved, and its mountains, and they are crushed to powder at one stroke,-  
 
  فَيَوْمَئِذٍ وَقَعَتِ الْوَاقِعَةُ  (15
সেদিন কেয়ামত সংঘটিত হবে।  
On that Day shall the (Great) Event come to pass.  
 
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 | 31-45 | 46-52 |