Home    Source

 
 Home
 Subject Index
 Bukhari Shareef
 Muslim Shareef
 Abu Dawud
 Malik Muwatta
Google
See Arabic as Image 
37) সূরা আস-সাফফাত (মক্কায় অবতীর্ণ), আয়াত সংখ্যা 182
 بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
 শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 | 31-45 | 46-60 | 61-75 | 76-90 | 91-105 | 106-120 | 121-135 | 136-150 | 151-165 | 166-180 | 181-182 |
 
  أَئِذَا مِتْنَا وَكُنَّا تُرَابًا وَعِظَامًا أَئِنَّا لَمَبْعُوثُونَ  (16
আমরা যখন মরে যাব, এবং মাটি ও হাড়ে পরিণত হয়ে যাব, তখনও কি আমরা পুনরুত্থিত হব?  
"What! when we die, and become dust and bones, shall we (then) be raised up (again)  
 
  أَوَآبَاؤُنَا الْأَوَّلُونَ  (17
আমাদের পিতৃপুরুষগণও কি?  
"And also our fathers of old?"  
 
  قُلْ نَعَمْ وَأَنتُمْ دَاخِرُونَ  (18
বলুন, হ্যাঁ এবং তোমরা হবে লাঞ্ছিত।  
Say thou: "Yea, and ye shall then be humiliated (on account of your evil)."  
 
  فَإِنَّمَا هِيَ زَجْرَةٌ وَاحِدَةٌ فَإِذَا هُمْ يَنظُرُونَ  (19
বস্তুতঃ সে উত্থান হবে একটি বিকট শব্দ মাত্র-যখন তারা প্রত্যক্ষ করতে থাকবে।  
Then it will be a single (compelling) cry; and behold, they will begin to see!  
 
  وَقَالُوا يَا وَيْلَنَا هَذَا يَوْمُ الدِّينِ  (20
এবং বলবে, দুর্ভাগ্য আমাদের! এটাই তো প্রতিফল দিবস।  
They will say, "Ah! Woe to us! This is the Day of Judgment!"  
 
  هَذَا يَوْمُ الْفَصْلِ الَّذِي كُنتُمْ بِهِ تُكَذِّبُونَ  (21
বলা হবে, এটাই ফয়সালার দিন, যাকে তোমরা মিথ্যা বলতে।  
(A voice will say,) "This is the Day of Sorting Out, whose truth ye (once) denied!"  
 
  احْشُرُوا الَّذِينَ ظَلَمُوا وَأَزْوَاجَهُمْ وَمَا كَانُوا يَعْبُدُونَ  (22
একত্রিত কর গোনাহগারদেরকে, তাদের দোসরদেরকে এবং যাদের এবাদত তারা করত।  
"Bring ye up", it shall be said, "The wrong-doers and their wives, and the things they worshipped-  
 
  مِن دُونِ اللَّهِ فَاهْدُوهُمْ إِلَى صِرَاطِ الْجَحِيمِ  (23
আল্লাহ ব্যতীত। অতঃপর তাদেরকে পরিচালিত কর জাহান্নামের পথে,  
"Besides Allah, and lead them to the Way to the (Fierce) Fire!  
 
  وَقِفُوهُمْ إِنَّهُم مَّسْئُولُونَ  (24
এবং তাদেরকে থামাও, তারা জিজ্ঞাসিত হবে;  
"But stop them, for they must be asked:  
 
  مَا لَكُمْ لَا تَنَاصَرُونَ  (25
তোমাদের কি হল যে, তোমরা একে অপরের সাহায্য করছ না?  
"'What is the matter with you that ye help not each other?'"  
 
  بَلْ هُمُ الْيَوْمَ مُسْتَسْلِمُونَ  (26
বরং তারা আজকের দিনে আত্নসমর্পণকারী।  
Nay, but that day they shall submit (to Judgment);  
 
  وَأَقْبَلَ بَعْضُهُمْ عَلَى بَعْضٍ يَتَسَاءلُونَ  (27
তারা একে অপরের দিকে মুখ করে পরস্পরকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে।  
And they will turn to one another, and question one another.  
 
  قَالُوا إِنَّكُمْ كُنتُمْ تَأْتُونَنَا عَنِ الْيَمِينِ  (28
বলবে, তোমরা তো আমাদের কাছে ডান দিক থেকে আসতে।  
They will say: "It was ye who used to come to us from the right hand (of power and authority)!"  
 
  قَالُوا بَل لَّمْ تَكُونُوا مُؤْمِنِينَ  (29
তারা বলবে, বরং তোমরা তো বিশ্বাসীই ছিলে না।  
They will reply: "Nay, ye yourselves had no Faith!  
 
  وَمَا كَانَ لَنَا عَلَيْكُم مِّن سُلْطَانٍ بَلْ كُنتُمْ قَوْمًا طَاغِينَ  (30
এবং তোমাদের উপর আমাদের কোন কতৃত্ব ছিল না, বরং তোমরাই ছিলে সীমালংঘনকারী সম্প্রদায়।  
"Nor had we any authority over you. Nay, it was ye who were a people in obstinate rebellion!  
 
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 | 31-45 | 46-60 | 61-75 | 76-90 | 91-105 | 106-120 | 121-135 | 136-150 | 151-165 | 166-180 | 181-182 |