Home    Source

 
 Home
 Subject Index
 Bukhari Shareef
 Muslim Shareef
 Abu Dawud
 Malik Muwatta
Google
See Arabic as Image 
44) সূরা আদ দোখান (মক্কায় অবতীর্ণ), আয়াত সংখ্যা 59
 بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
 শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 | 31-45 | 46-59 |
 
  يَوْمَ نَبْطِشُ الْبَطْشَةَ الْكُبْرَى إِنَّا مُنتَقِمُونَ  (16
যেদিন আমি প্রবলভাবে ধৃত করব, সেদিন পুরোপুরি প্রতিশোধ গ্রহণ করবই।  
One day We shall seize you with a mighty onslaught: We will indeed (then) exact Retribution!  
 
  وَلَقَدْ فَتَنَّا قَبْلَهُمْ قَوْمَ فِرْعَوْنَ وَجَاءهُمْ رَسُولٌ كَرِيمٌ  (17
তাদের পূর্বে আমি ফেরাউনের সম্প্রদায়কে পরীক্ষা করেছি এবং তাদের কাছে আগমন করেছেন একজন সম্মানিত রসূল,  
We did, before them, try the people of Pharaoh: there came to them an apostle most honourable,  
 
  أَنْ أَدُّوا إِلَيَّ عِبَادَ اللَّهِ إِنِّي لَكُمْ رَسُولٌ أَمِينٌ  (18
এই মর্মে যে, আল্লাহর বান্দাদেরকে আমার কাছে অর্পণ কর। আমি তোমাদের জন্য প্রেরীত বিশ্বস্ত রসূল।  
Saying: "Restore to me the Servants of Allah. I am to you an apostle worthy of all trust;  
 
  وَأَنْ لَّا تَعْلُوا عَلَى اللَّهِ إِنِّي آتِيكُم بِسُلْطَانٍ مُّبِينٍ  (19
আর তোমরা আল্লাহর বিরুদ্ধে ঔদ্ধত্য প্রকাশ করো না। আমি তোমাদের কাছে প্রকাশ্য প্রমাণ উপস্থিত করছি।  
"And be not arrogant as against Allah. for I come to you with authority manifest.  
 
  وَإِنِّي عُذْتُ بِرَبِّي وَرَبِّكُمْ أَن تَرْجُمُونِ  (20
তোমরা যাতে আমাকে প্রস্তরবর্ষণে হত্যা না কর, তজ্জন্যে আমি আমার পালনকর্তা ও তোমাদের পালনকর্তার শরনাপন্ন হয়েছি।  
"For me, I have sought safety with my Lord and your Lord, against your injuring me.  
 
  وَإِنْ لَّمْ تُؤْمِنُوا لِي فَاعْتَزِلُونِ  (21
তোমরা যদি আমার প্রতি বিশ্বাস স্থাপন না কর, তবে আমার কাছ থেকে দূরে থাক।  
"If ye believe me not, at least keep yourselves away from me."  
 
  فَدَعَا رَبَّهُ أَنَّ هَؤُلَاء قَوْمٌ مُّجْرِمُونَ  (22
অতঃপর সে তার পালনকর্তার কাছে দোয়া করল যে, এরা অপরাধী সম্প্রদায়।  
(But they were aggressive:) then he cried to his Lord: "These are indeed a people given to sin."  
 
  فَأَسْرِ بِعِبَادِي لَيْلًا إِنَّكُم مُّتَّبَعُونَ  (23
তাহলে তুমি আমার বান্দাদেরকে নিয়ে রাত্রিবেলায় বের হয়ে পড়। নিশ্চয় তোমাদের পশ্চাদ্ধবন করা হবে।  
(The reply came:) "March forth with My Servants by night: for ye are sure to be pursued.  
 
  وَاتْرُكْ الْبَحْرَ رَهْوًا إِنَّهُمْ جُندٌ مُّغْرَقُونَ  (24
এবং সমুদ্রকে অচল থাকতে দাও। নিশ্চয় ওরা নিমজ্জত বাহিনী।  
"And leave the sea as a furrow (divided): for they are a host (destined) to be drowned."  
 
  كَمْ تَرَكُوا مِن جَنَّاتٍ وَعُيُونٍ  (25
তারা ছেড়ে গিয়েছিল কত উদ্যান ও প্রস্রবন,  
How many were the gardens and springs they left behind,  
 
  وَزُرُوعٍ وَمَقَامٍ كَرِيمٍ  (26
কত শস্যক্ষেত্র ও সূরম্য স্থান।  
And corn-fields and noble buildings,  
 
  وَنَعْمَةٍ كَانُوا فِيهَا فَاكِهِينَ  (27
কত সুখের উপকরণ, যাতে তারা খোশগল্প করত।  
And wealth (and conveniences of life), wherein they had taken such delight!  
 
  كَذَلِكَ وَأَوْرَثْنَاهَا قَوْمًا آخَرِينَ  (28
এমনিই হয়েছিল এবং আমি ওগুলোর মালিক করেছিলাম ভিন্ন সম্প্রদায়কে।  
Thus (was their end)! And We made other people inherit (those things)!  
 
  فَمَا بَكَتْ عَلَيْهِمُ السَّمَاء وَالْأَرْضُ وَمَا كَانُوا مُنظَرِينَ  (29
তাদের জন্যে ক্রন্দন করেনি আকাশ ও পৃথিবী এবং তারা অবকাশও পায়নি।  
And neither heaven nor earth shed a tear over them: nor were they given a respite (again).  
 
  وَلَقَدْ نَجَّيْنَا بَنِي إِسْرَائِيلَ مِنَ الْعَذَابِ الْمُهِينِ  (30
আমি বনী-ইসরাঈলকে অপমানজনক শাস্তি থেকে উদ্ধার করছি।  
We did deliver aforetime the Children of Israel from humiliating Punishment,  
 
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 | 31-45 | 46-59 |