Home    Source

 
 Home
 Subject Index
 Bukhari Shareef
 Muslim Shareef
 Abu Dawud
 Malik Muwatta
Google
See Arabic as Image 
89) সূরা আল ফজর (মক্কায় অবতীর্ণ), আয়াত সংখ্যা 30
 بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
 শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 |
 
  وَأَمَّا إِذَا مَا ابْتَلَاهُ فَقَدَرَ عَلَيْهِ رِزْقَهُ فَيَقُولُ رَبِّي أَهَانَنِ  (16
এবং যখন তাকে পরীক্ষা করেন, অতঃপর রিযিক সংকুচিত করে দেন, তখন বলেঃ আমার পালনকর্তা আমাকে হেয় করেছেন।  
But when He trieth him, restricting his subsistence for him, then saith he (in despair), "My Lord hath humiliated me!"  
 
  كَلَّا بَل لَّا تُكْرِمُونَ الْيَتِيمَ  (17
এটা অমূলক, বরং তোমরা এতীমকে সম্মান কর না।  
Nay, nay! but ye honour not the orphans!  
 
  وَلَا تَحَاضُّونَ عَلَى طَعَامِ الْمِسْكِينِ  (18
এবং মিসকীনকে অন্নদানে পরস্পরকে উৎসাহিত কর না।  
Nor do ye encourage one another to feed the poor!-  
 
  وَتَأْكُلُونَ التُّرَاثَ أَكْلًا لَّمًّا  (19
এবং তোমরা মৃতের ত্যাজ্য সম্পত্তি সম্পূর্ণরূপে কুক্ষিগত করে ফেল  
And ye devour inheritance - all with greed,  
 
  وَتُحِبُّونَ الْمَالَ حُبًّا جَمًّا  (20
এবং তোমরা ধন-সম্পদকে প্রাণভরে ভালবাস।  
And ye love wealth with inordinate love!  
 
  كَلَّا إِذَا دُكَّتِ الْأَرْضُ دَكًّا دَكًّا  (21
এটা অনুচিত। যখন পৃথিবী চুর্ণ-বিচুর্ণ হবে  
Nay! When the earth is pounded to powder,  
 
  وَجَاء رَبُّكَ وَالْمَلَكُ صَفًّا صَفًّا  (22
এবং আপনার পালনকর্তা ও ফেরেশতাগণ সারিবদ্ধভাবে উপস্থিত হবেন,  
And thy Lord cometh, and His angels, rank upon rank,  
 
  وَجِيءَ يَوْمَئِذٍ بِجَهَنَّمَ يَوْمَئِذٍ يَتَذَكَّرُ الْإِنسَانُ وَأَنَّى لَهُ الذِّكْرَى  (23
এবং সেদিন জাহান্নামকে আনা হবে, সেদিন মানুষ স্মরণ করবে, কিন্তু এই স্মরণ তার কি কাজে আসবে?  
And Hell, that Day, is brought (face to face),- on that Day will man remember, but how will that remembrance profit him?  
 
  يَقُولُ يَا لَيْتَنِي قَدَّمْتُ لِحَيَاتِي  (24
সে বলবেঃ হায়, এ জীবনের জন্যে আমি যদি কিছু অগ্রে প্রেরণ করতাম!  
He will say: "Ah! Would that I had sent forth (good deeds) for (this) my (Future) Life!"  
 
  فَيَوْمَئِذٍ لَّا يُعَذِّبُ عَذَابَهُ أَحَدٌ  (25
সেদিন তার শাস্তির মত শাস্তি কেউ দিবে না।  
For, that Day, His Chastisement will be such as none (else) can inflict,  
 
  وَلَا يُوثِقُ وَثَاقَهُ أَحَدٌ  (26
এবং তার বন্ধনের মত বন্ধন কেউ দিবে না।  
And His bonds will be such as none (other) can bind.  
 
  يَا أَيَّتُهَا النَّفْسُ الْمُطْمَئِنَّةُ  (27
হে প্রশান্ত মন,  
(To the righteous soul will be said:) "O (thou) soul, in (complete) rest and satisfaction!  
 
  ارْجِعِي إِلَى رَبِّكِ رَاضِيَةً مَّرْضِيَّةً  (28
তুমি তোমার পালনকর্তার নিকট ফিরে যাও সন্তুষ্ট ও সন্তোষভাজন হয়ে।  
"Come back thou to thy Lord,- well pleased (thyself), and well-pleasing unto Him!  
 
  فَادْخُلِي فِي عِبَادِي  (29
অতঃপর আমার বান্দাদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাও।  
"Enter thou, then, among My devotees!  
 
  وَادْخُلِي جَنَّتِي  (30
এবং আমার জান্নাতে প্রবেশ কর।  
"Yea, enter thou My Heaven!  
 
  Ayahs:   | 1-15 | 16-30 |